শনিবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২৩  

শিরোনাম

সন্দ্বীপে বৈদ্যুতিক খাম্বা বাণিজ্য ও অনিয়মের অভিযোগ

অনুসন্ধান অফিস    |    ০৯:২৮ এএম, ২০২০-০৬-২৪

সন্দ্বীপে বৈদ্যুতিক  খাম্বা বাণিজ্য ও অনিয়মের অভিযোগ

সন্দ্বীপে সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সংযোগ কার্যক্রমে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। দ্বীপের বিভিন্ন ইউনিয়নে বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন মিটার সংযোগ দেয়ার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা অস্বাভাবিক পরিমাণে অর্থ আদায় করছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা।

চট্টগ্রামের দ্বীপ উপজেলা সন্দ্বীপের ২০ হাজার পরিবারকে বিদ্যুৎ সংযোগের আওতায় আনতে সাবমেরিন কেবল স্থাপনের কাজ শেষ হয় ২০১৮ সালের নভেম্বরে। এরপর দেড় বছরের বেশি সময় পেরোলেও এখন পর্যন্ত গ্রাহকদের সংযোগ দেয়া হয়েছে মাত্র সাড়ে হাজার। এসব সংযোগ দেয়ার ক্ষেত্রে নিয়মবহির্ভূত আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ তুলেছেন গ্রাহক সংযোগপ্রত্যাশীরা।

জানা গিয়েছে, বৃহত্তর চট্টগ্রাম অঞ্চলে প্রায় পাঁচ লাখ নতুন সংযোগ বৃদ্ধির লক্ষ্যে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের এক মেগা প্রকল্পের অধীনে সন্দ্বীপে বিদ্যুৎ দেয়ার কার্যক্রম শুরু হয়। প্রকল্পের আওতায় প্রথমবারের মতো সাবমেরিন কেবলের মাধ্যমে জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে যুক্ত করা হয় দ্বীপ উপজেলাটিকে।

গ্রাহকদের অভিযোগ, সন্দ্বীপ জাতীয় গ্রিডের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার পর স্থানীয় বাসিন্দাদের সংযোগ পেতে নির্ধারিত অর্থের চেয়েও বেশি পরিমাণে টাকা দিতে হয়েছে। এক্ষেত্রে প্রতিটি মিটার স্থাপনে আড়াই হাজার টাকা খরচ হওয়ার কথা থাকলেও গ্রাহকদের কাছ থেকে হাজার থেকে ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এরই মধ্যে সন্দ্বীপের একাধিক আবাসিক প্রকৌশলীকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে, যদিও অনিয়ম থামেনি। 

নাম অপ্রকাশিত রাখার শর্তে সন্দ্বীপের ভুক্তভোগী একাধিক বাসিন্দা বণিক বার্তাকে বলেন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের যোগসাজশে বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন, সংযোগ প্রদানের ক্ষেত্রে দফায় দফায় অর্থ আদায় করছে। মূল সড়ক থেকে গ্রামাঞ্চলের উপসড়কগুলোয় বিদ্যুতের খুঁটি বসানোর ক্ষেত্রে দুই দফায় অর্থ আদায় করা হচ্ছে। এক্ষেত্রে খুঁটিপ্রতি নেয়া হচ্ছে হাজার থেকে হাজার টাকা পর্যন্ত। বিদ্যুৎ বিভাগের এসব অনিয়ম নিয়ে একাধিকবার স্থানীয়রা আন্দোলনে নামলেও বিদ্যুৎ সংযোগ খুঁটি বসানোর কাজ বন্ধ রাখার মাধ্যমে আগ্রহী গ্রাহকদের অতিরিক্ত টাকা দিতে বাধ্য করা হচ্ছে।

সন্দ্বীপের সারিকাইত ইউনিয়নের বাসিন্দা ব্যবসায়ী আবদুর রহিম বণিক বার্তাকে অভিযোগ করে বলেন, বাড়িতে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার জন্য প্রথম পর্যায়ে ২০ হাজার টাকা নিয়েছে বিদ্যুৎ বিভাগের কর্মীরা। বর্তমানে প্রতিটি খুঁটি বসাতে হাজার টাকা হিসেবে ৩২ হাজার টাকা দাবি করা হচ্ছে। আমরা স্থানীয়ভাবে টাকা দিতে অস্বীকৃতি জানালে খুঁটি স্থাপনের কাজ বন্ধ করে দেয়া হয়েছে।

সম্প্রতি সন্দ্বীপের বেশ কয়েকটি ইউনিয়নের বাসিন্দাদের পক্ষে উপজেলায় নিযুক্ত পিডিবির আবাসিক প্রকৌশলীর কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়। এতে বলা হয়, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা সঞ্চালন লাইন স্থাপনের জন্য খুঁটিপ্রতি নগদ অর্থের দাবি তুলেছেন স্থানীয় বাসিন্দাদের কাছে। এছাড়া স্থানীয় সাবেক জনপ্রতিনিধি বিদ্যুৎ অফিসের কর্মকর্তাদের যোগসাজশে ইউনিয়নের ১৫টি পরিবারের কাছ থেকে বাবদ ৪০ হাজার টাকা এরই মধ্যে হাতিয়ে নিয়েছে। দ্বীপের অন্যান্য এলাকায় বিদ্যুতের খুঁটি বসানোর জন্য খুঁটিপ্রতি হাজার টাকা করে দাবি করা হয়েছে।

অভিযোগের বিষয়টি স্বীকার করে পিডিবির আবাসিক প্রকৌশলী ইব্রাহিম খলিল বণিক বার্তাকে বলেন, নতুন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন স্থাপনের কাজটি হচ্ছে চলমান প্রকল্পের আওতায়। ওই প্রকল্পের সঙ্গে বিদ্যুৎ বিতরণ বিভাগের সম্পর্ক নেই। তবে স্থানীয় জনগোষ্ঠীর মধ্যে সবার আগে বিদ্যুৎ সংযোগ পাওয়া নিয়ে প্রতিযোগিতা রয়েছে। কারণে কেউ কেউ না চাইলেও ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান বা প্রকল্পে কর্মরতদের নিয়মবহির্ভূত অর্থ দেয়ার বিষয়টি শুনেছি।

সময় মিটার স্থাপন বা সংযোগ নেয়ার ক্ষেত্রে কর্মকর্তাদের অর্থ দাবির বিষয়টি অস্বীকার করেন তিনি। 

পিডিবি সূত্র জানায়, সন্দ্বীপে বিদ্যুৎ সুবিধা প্রদান প্রকল্পে ব্যয় হয়েছে ১৪৪ কোটি টাকা। সাবমেরিন কেবল স্থাপনের প্রকল্পটি অনুমোদন পেয়েছিল ২০১৪ সালের ১০ সেপ্টেম্বর। সূত্র: বণিক বার্তা

রিলেটেড নিউজ

সন্দ্বীপের বানীরহাটে একরাতে ১৮দোকান চুরি

সন্দ্বীপের বানীরহাটে একরাতে ১৮দোকান চুরি

দৈনিক অনুসন্ধান : ...............মোঃ হাসানুজ্জামান সন্দ্বীপি সন্দ্বীপে গত কয়েকদিন যাবত গণচুরি বেড়েছে। কোনভাবে চুরি ঠেকান...বিস্তারিত


প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

দৈনিক অনুসন্ধান :   আহমেদ রকিব, বিশেষ প্রতিনিধি।  আমি নিন্মস্বাক্ষরকারী মোঃ রায়হান উদ্দিন চট্টগ্রাম কাস্টম হা...বিস্তারিত


হিউম্যান ওয়েলবিয়িং ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

হিউম্যান ওয়েলবিয়িং ফাউন্ডেশন অব বাংলাদেশ উদ্যোগে শীতবস্ত্র বিতরণ

দৈনিক অনুসন্ধান : মোঃ ওয়ারেস আলী, বিশেষ প্রতিনিধিঃ বহুল পরিচিত সামাজিক প্রতিষ্ঠাণ হিউম্যান ওয়েলবিয়িং ফাউন্ডেশন অ...বিস্তারিত


সন্দ্বীপ উপজেলা পরিষদের  চেয়ারম্যান আর নেই

সন্দ্বীপ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আর নেই

দৈনিক অনুসন্ধান :   মোঃ হাসানুজ্জামান সন্দ্বীপি সন্দ্বীপ  উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান মোহ...বিস্তারিত


ঈদগাঁও নদী থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

ঈদগাঁও নদী থেকে যুবকের মরদেহ উদ্ধার

সেলিম উদ্দিন, কক্সবাজার প্রতিনিধি :   সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও। কক্সবাজারের ঈদগাঁও উপজেলার ঈদগাঁও নদী থেকে শাহাব উদ্দীন (৪০) নামের এক ব...বিস্তারিত


হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) আইন, ২০২৩ বিল সংসদে উত্থাপন

হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) আইন, ২০২৩ বিল সংসদে উত্থাপন

অনুসন্ধান অনলাইন ডেস্ক : জাতীয় সংসদে আজ ‘হাট ও বাজার (স্থাপন ও ব্যবস্থাপনা) আইন, ২০২৩’ বিল উত্থাপন করা হয়েছে। হাট ও বাজার (...বিস্তারিত



সর্বপঠিত খবর

বিয়ে করে ৩ মাস সংসার করে পালিয়ে যান সন্দ্বীপের শিপন

বিয়ে করে ৩ মাস সংসার করে পালিয়ে যান সন্দ্বীপের শিপন

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রেম  করে পালিয়ে বিয়ে করেন মোহাম্মদ শিপন ও রিমা সরকার। বিয়ের ৩ মাসের মাথায় স্ত্রী রিমা সরকার কে ...বিস্তারিত


সন্দ্বীপে পুলিশ কর্তৃক অন্তঃস্ত্ত্বা নারী নির্যাতিত, গর্ভের সন্তান মৃত!

সন্দ্বীপে পুলিশ কর্তৃক অন্তঃস্ত্ত্বা নারী নির্যাতিত, গর্ভের সন্তান মৃত!

নিজস্ব প্রতিবেদক : কাউছার মাহমুদ দিদারঃ  চট্টগ্রামের সন্দ্বীপে  সিভিল পোশাকে আসামী ধরতে গিয়ে মধ্যযুগীয় কায়দায় ...বিস্তারিত



সর্বশেষ খবর